পাবনায় প্রতিবেশীর বাথরুমে মিলল স্কুলশিক্ষার্থীর মরদেহ

পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুরে প্রতিবেশীর বাথরুমে থেকে রোমিও (৮) নামের ৩য় শ্রেণির এক স্কুলশিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছে- তাকে পিটিয়ে হত্যা করে মরদেহ মাথরুমে ফেলে রাখা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) ভোরে চর তারাপুর ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গী গ্রামের মির্জা মশিউর রহমানের বাড়ির বাথরুম থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত রোমিও বালিয়াডাঙ্গী গ্রামের মাসুদ আলীর ছেলে ও বালিয়াডাঙ্গী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার সকালে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরেনি। অনেক খোঁজাখুজি করে তাকে না পেয়ে এলাকায় মাইকিংও করে পরিবারের লোকজন। আজ ভোরে ভোরে প্রতিবেশী মশিউরের বাড়ির বাথরুমে রোমিওর মরদেহ দেখতে পেয়ে তাদের খবর দেন প্রতিবেশীরা। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর বলা যাবে সে কিভাবে মারা গেছে।’

error: কাজ হবি নানে ভাই। কপি-টপি বন্ধ