রূপপুর প্রকল্পের আরও এক রুশ নাগরিকের অস্বাভাবিক মৃত্যু

পাবনার ঈশ্বরদীস্থ দেশের সবচেয়ে বড় বিদ্যুৎ প্রকল্প রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে (আরএনপিপি) আরও এক রাশিয়ান নাগরিকদের মৃত্যু হয়েছে। প্রকল্পের আবাসিক ভবন থেকে এক রাশিয়ানের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৩ জুন) সকালে সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঈশ্বরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার। এর আগে ‌রবিবার রাতে প্রকল্পের আবাসিক এলাকার গ্রীনসিটির লিফটের সামনে পড়ে থাকা অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এনিয়ে দেশব্যাপী আলোচিত এই প্রকল্পে কর্মরত ১৮ রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু হলো। প্রকল্পের কর্মকর্তাদের মধ্যে অর্ধেকই রাশিয়ান। রাশিয়া, ভারত, ইউক্রেন, বেলারুশ, পোল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াসহ ১৫টি দেশের পাঁচ হাজার ৩শ-৪শর মতো নাগরিক এখানে কাজ করেন। এরমধ্যে রাশিয়ানদের সংখ্যাই তিন হাজার ৮০০।

মৃত রাশিয়ান নাগরিকের নাম ইভানভ এ্যান্টন (৩৩)। তিনি প্রকল্পের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান রোশেম কোম্পানীতে ইনস্ট্রলার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ইভানভ প্রকল্পের গ্রীণসিটির ২ নম্বর ভবনের ১২ তলার ১২৬ নং ফ্লাটে থাকতেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার। তিনি জানান, রাতে ইভানভ গ্রীনসিটির পাশের একটি রেঁস্তোরা থেকে খাবার কিনে রূমে ফেরার সময় লিফট হতে নেমে পড়ে যান। এসময় সে কয়েকবার বমিও করে। ঘটনা সম্পর্কে সংবাদ পেয়ে ডাক্তার এসে মৃত ঘোষণা করেন এবং মরদেহ পুলিশে হস্তান্তর করা হয়। রোশেমের ডাক্তার মৃত্যুর ঘটনাকে সার্টেন হার্ট এ্যাটাক বলেছেন।

ইভনভের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে বলে জানান ওসি।