যুদ্ধের দামামা, লাদাখের পথে ২০ হাজার পাকিস্তানি সেনা

সময়ের ব্যবধানে চীন ও ভারতের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। এই উত্তেজনায় নতুন করে উত্তপ্ত করে তুলছে পাকিস্তান। লাদাখ সীমান্তে গলওয়ান উপত্যকায় চীনা সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষের পর সতর্ক অবস্থানে আছে ভারত-চীনের দেশের সেনারা।

চলছে দফায় দফায় বৈঠক, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার কথা বলছে দুই পক্ষই। এরই মধ্যে সামনে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য! শোনা যাচ্ছে, পাকিস্তানের সঙ্গে যোগসাজস চলছে চীনের। আর তাই চীনের পাশে থাকার জন্য এগিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানি সেনা।

সূত্র বলছে, গিলগিট-বালতিস্তান এলাকার দিকে সেনা পাঠিয়েছে পাকিস্তান। চীনা সেনার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য ২০,০০০ অতিরিক্ত বাহিনী লাদাখ অঞ্চলের দিকে পাঠিয়েছে পাকিস্তান। মনে করা হচ্ছে, চীন-পাকিস্তান উভয়েই ভারতের সঙ্গে ‘টু ফ্রন্ট ওয়ার’ এর দিকে যেতে চাইছে।

ইন্ডিয়া টুডে-তে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর সঙ্গে গোপনে কথাবার্তা চলছে চীনের। এমনকি পাকিস্তানের কুখ্যাত বর্ডার অ্যাকশন টিম (ব্যাট)-কে দিয়ে ভারতে হামলা চালানোর পরিকল্পনাও করা হচ্ছে।

এদিকে আবার কাশ্মীরের দিকে দলে দলে স্বাধীনতাকামী যোদ্ধাদের পাঠানো হচ্ছে। সাম্প্রতিককালে অন্তত ১২০ স্বাধীনতাকামীকে হত্যা করেছে ভারতীয় সেনা।

এদের বেশির ভাগই পাকিস্তানি যোদ্ধা বলে জানা গেছে। ভারতীয় সেনার ওপর হামলা চালিয়ে ভারতের পরিস্থিতি টালমাটাল করে দেওয়ার ছক কষছে দুই দেশ।

সীমান্ত থেকে পিছু হটেছে চীনের সেনাবাহিনী- ভারতের এই দাবির পর  স্যাটেলাইট চিত্র বলছে অন্য কথা। ছবিতে দেখা গেছে, লাদাখ সীমান্ত ঘেঁষে ব্যাপক নির্মাণ কাজ চালাচ্ছে চীন। গানওয়াল নদীর পর্যন্ত আটকে দেওয়া হয়েছে বলে চীনের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ সামনে এসেছে।

এছাড়াও সামনে আসছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। পাকিস্তানের করাচি বন্দরে রাখা হয়েছে চীনের ০৯৩-শ্যাং নিউক্লিয়ার সাবমেরিন। লাহোরে জে-১১ যুদ্ধবিমান মোতায়েন করা হয়েছে।