অবশেষে মারা গেলেন দেওয়ানবাগী পীর মাহবুব

দেশের বহুল আলোচিত-সমালোচিত রাজধানী ঢাকার আরামবাগের পীর মাহবুব-এ-খোদা ওরফে দেওয়ানবাগী পীর মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্নাইলাইহি রাজিউন)। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে আরামবাগের নিজ বাস ভবনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে দেওয়ানবাগ শরীফের মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর সৈয়দ মেহেদী হাসান বলেন, সকালে বাসায় হৃদরোগে আক্রান্ত হলে উত্তরার আবাসিক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে পৌনে ৭টার দিকে দেওয়ানবাগী পীর মারা যান।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) বাদ জোহর মতিঝিল দেওয়ানবাগ শরীফে বাবে রহমতে জানাজার পর বাংলাদেশ ব্যাংকের পেছনে বাবে মদিনা দরবারে তার স্ত্রীর কবরের পাশে দাফন করা হবে।

রাজধানীর আরামবাগে দেওয়ানবাগ শরীফের পীর মাহবুব-এ খোদা ওরফে দেওয়ানবাগী মাহাবুব-এ-খোদা ১৯৪৯ সালের ১৪ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাবার নাম সৈয়দ আবদুর রশিদ সরদার। মা সৈয়দা জোবেদা খাতুন। ছয় ভাই, দুই বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট।

নিজ এলাকার তালশহর কারিমিয়া আলিয়া মাদ্রাসা থেকে ফাজিল পর্যন্ত পড়াশোনা করেন মাহবুব-এ খোদা। পরে ফরিদপুরে চন্দ্রপাড়া দরবারের প্রতিষ্ঠাতা আবুল ফজল সুলতান আহমেদ চন্দ্রপুরীর হাতে বাইয়াত নেন। এরপর পীরের মেয়ে হামিদা বেগমকে বিয়ে করেন দেওয়ানবাগী এবং শ্বশুরের কাছ থেকে খেলাফত লাভ করেন।

সেখান থেকে নিজেই নারায়ণগঞ্জে এসে দেওয়ানবাগ নামক স্থানে একটি আস্তানা গাড়েন এবং সুফি সম্রাট পরিচয় দিতে থাকেন মাহবুব-এ খোদা। আস্তে আস্তে তার অনুসারী বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে মতিঝিলের ১৪৭ আরামবাগে স্থায়ী দরবার গড়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেন এই দেওয়ানবাগী।