ভাঙ্গুড়ায় চাঁদা না দেয়ায় কৃষকের স্কিম বন্ধের অভিযোগ

ভাঙ্গুড়া প্রতিনিধি: পাবনার ভাঙ্গুড়ায় চাঁদা না দেওয়ায় এক কৃষকের স্কীম বন্ধ করে দিয়েছে কিছু স্থানিয় প্রভাব শালী ক্যাডার সন্ত্রাসীরা। এবিষয়ে কৃষক আবু তালেব ভাঙ্গুড়া থানায় মঙ্গরবার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

স্কীম বন্ধ করে দেওয়ায় এবছর ওই স্কীমের আওতায় প্রায় ৩০বিঘা জমিতে ইরি চাষ আবাদ না হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আবাদ না হলে এই জমির মালিক কৃষকরা ক্ষতি গ্রস্থ হবে পাশা পাশি দেশে খাদ্যের ঘাটতি হবে।।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের পরমানন্দপুর গ্রামে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পরমানন্দপুর গ্রামের হজী মোঃ আবু তালেব নিজ নামিয় পাসকৃত স্কীমের মটর দিয়ে দির্ঘ দির ধরে বোর চাষের জমিতে পানি দিয়ে আসছে। এবছর রবিবার(৭ ফেব্রয়ারি) স্কীমে মটর চালিয়ে পানি দিচ্ছিল এমন সময় ওই এলাকার ক্যাডার সন্ত্রাসী মৃত কাশেম সরকারের ছেলে মোঃ স্বাধীন(৫০),আঃ ছামাদ প্রামানিকের ছেলে মোঃ ফারুক (৪০),মৃত ফয়েজ প্রামানিকের ছেলে আরিফ (৫০),মৃত তাহেজ খার ছেলে আবু শামা(৫৮) ও আবুশামার ছেলে মোঃ মানিক ২০হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।

কৃষক আবু তালেব টাকা দেওয়ায় রাজি না হলে তাকে প্রাণে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে মটর বন্ধ করে দেয়। টাকা আগে দিয়ে পরে স্কীম চালাতে হবে। টাকা না দিলে এবছর স্কীম চলবে না। এর পরে আমাদের দাবি পুরণ না করে স্কীম চালালে তোর রক্ষা নেই বলে চলে যায়। কৃষক প্রাণের ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

জানা যায়, অভিযুক্ত অনেকের নামে পূবে চুরিসহ নানা অনিয়ম ও দূরনিতির অভিযোগ রয়েছে। স্বাধীন ও ফারুক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন আমরা স্কীম বন্ধ করেদিয়েছি গাল মন্দ করেছি ভয়ভিতি দেখিয়েছি কিন্তু টাকা চাইনি। স্কীম বন্ধের কারণ জান্তে চাইলে বলেন এত দিন সে খেয়েছে এখন আমাদের দল ক্ষমতায় আমরা খাব। আইন মানিনা সে স্কীম চালাতে চাইলে আমাদের দাবি পুরণ করতে হবে। আমাদের সমাজে আসতে হবে, আমাদের নতুন মসজিদে নামাজ আদায় করতে হবে, আমাদের কথামত চলতে হবে,তার আত্মীয়রা আমাদের নামে যে সকল মামলা দিয়েছে তা উঠিয়ে নিতে হবে।

 ভাঙ্গুড়া থানার এস আই নাজমুল কাদের অভিযোগ প্রাপ্তি স্বীকার করে বলেন,বিষয়টি সত্যতা পাওয়া গেলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।