পুলিশ বক্সে বোমা হামলা, পুলিশসহ ৫ জন হাসপাতালে

চট্টগ্রাম নগরের দুই নম্বর গেট মোড় পুলিশ বক্সে বোমা বিস্ফোরণে দুই পুলিশ সদস্যসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

কে বা কারা এই হামলা চালিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এই হামলার ইতিপূর্বে ঢাকায় পুলিশ বক্সে নব্য জেএমবির বোমা হামলার যোগসূত্র রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

হামলায় আহতরা হলেন, সার্জেন্ট আরাফাতুর রহমান, সহকারী পুলিশ পরিদর্শক (এএসআই) মো. আতিক, পথচারী জাহিদ বিন জাহাঙ্গীর, মো. সুমন ও দশ বছরের এক শিশু। তাঁরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ট্রাফিক কনস্টেবল নুরুল ইসলাম বলেন, সন্ধ্যা ছয়টার দিকে বাজার করে তিনি এগুলো ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পাশে রাখেন। দায়িত্ব পালনের জন্য বিভিন্ন সরঞ্জামও নেন। তখন বাক্সে ভেতর কিছু দেখেননি। রাত সাড়ে আটটার দিকে ২ নম্বর গেটে মোড়ে দায়িত্ব পালনকালে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। তবে আশপাশে কাউকে দেখেননি।

রাতে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, পুলিশ বক্সের চারপাশে থাকা কাচগুলো ভেঙে নিচে পড়ে আছে। বক্সের ছাদের কোনা ফুটো হয়ে আছে। বক্সের নিচে থাকা লোহার পাতগুলো এলোমেলো। ঘটনাস্থলের আশপাশে ঘেরাও করে বোমা সদৃশ বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করছে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের সদস্যরা।

ঘটনাস্থলে চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আমেনা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রথমে আমরা মনে করেছিলাম বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এই ঘটনা ঘটেছে। পরে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে মনে হচ্ছে বিস্ফোরণ। এটি পুলিশ বক্সের ভেতর কে বা কারা রেখে গিয়েছিল ধারণা করা হচ্ছে। ছুড়ে মারা হয়নি। ঢাকায় পুলিশ বক্সে হামলার ঘটনার সঙ্গে এটির মিল রয়েছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’