পাবনা-৪ নির্বাচন: মনোনয়ন চান বিএনপির দুই নেতা, মাঠে নেই জামায়াত

পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) সংসদীয় আসনের উপনির্বাচন সামনে। করোনা মহামারীর মধ্যে যশোর-৬ ও বগুড়া-১ উপনির্বাচন বর্জন করলেও এই পাবনাসহ আসন্ন দেশের ৫টি আসনের উপনির্বাচনে অংশ নেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন বিএনপির নীতিনির্ধারকরা।

ফলে পাবনা-৪ আসনে দলীয় মনোনয়ন পেতে নেতারা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। দলের হাইকমান্ডের নজর কাড়তে শুরু করেছেন লবিংও। একই সঙ্গে ডিজিটাল মাধ্যম কিংবা নিজ বাসায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নেতাকর্মীদের সঙ্গেও যোগাযোগ বাড়ানোর কাজ শুরু করেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

উপনির্বাচনের এই দৌড়ে পিছিয়ে নেই জাতীয় পার্টিসহ অন্যরাও। তবে এই আসনে শক্ত অবস্থান থাকা সত্বেও নির্বাচনের প্রস্তুতি নেই জামায়াত ইসলামীতে। দলটি জাতীয় নির্বাচনের পর সব ধরনের নির্বাচন থেকে সরে এসেছে। ফলে এই আসনের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না বলে জানা গেছে।

দীর্ঘ ২২ বছর আগে হারানো আসনটি ফিরে পেতে নির্বাচনে অংশ নিতে চায় স্থানীয় বিএনপি। দলের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য সাবেক সাংসদ সিরাজুল ইসলাম সরদার। তাঁরাও বিভিন্ন সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন।

অন্যদিকে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন সাবেক সাংসদ মঞ্জুর রহমান বিশ্বাস, জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি হায়দার আলী।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে এখনো কিছু বলছি না। কেন্দ্রীয় বিএনপি থেকে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তবে দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয়, নির্বাচনে অংশ নেব।’