পাবনা বার্তায় সংবাদ প্রকাশ, দুই গ্রামের মানুষের সেই বন্ধ রাস্তা খুলে দিলো পুলিশ!

গত বুধবার পাবনা বার্তা ২৪ ডটকমস বিভিন্ন গণমাধ্যমে “আ.লীগ-যুবলীগের নেতার সহযোগিতায় দুই গ্রামের মানুষের রাস্তা বন্ধ করল প্রভাবশালী” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় পাবনা পুলিশ সুপারের নির্দেশে থানার ওসির হস্তক্ষেপে অবশেষে আটঘরিয়ায় দুই গ্রামের মানুষের চলাচলের রাস্তাটি খুলে দেওয়া হয়েছে।

আর এই উদ্যোগের ফলে পাবনা পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান, আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতনসহ আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান এলাকাবাসী।

হিন্দুপল্লীর বাসিন্দা শ্রী লংক কুমার সরকার বলেন, মানুষের চলাচলের রাস্তা খুলে দেওয়ায় পুরো এলাকার মানুষের মধ্যে জনপ্রতিনিধি এবং পুলিশের প্রতি আস্থা আরো বেড়েছে।

একাধীক গ্রামবাসী বলেন, রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়া পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম রতন ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে রাস্তা খুলে দেওয়ার জন্য দখলদারদের সাফ জানিয়ে দেন।

এ বিষয়ে আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: হাফিজুর রহমান বলেন, পুলিশ সুপারের নির্দেশে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে মানুষের চলাচলের রাস্তা খুলে দিতে বলা হলে বৃহস্পতিবার দুপুরে তারা রাস্তায় ট্রিনের বেড়া খুলে দেন। সাধারণ মানুষের চলাচলের জন্য জরুরী ভিত্তিতে পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান এর নির্দেশে তা ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পৌর সভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন বলেন, আমার পৌর এলাকার মানুষের চলাচলের রাস্তা কেউ বন্ধ করতে পারবেনা।

উল্লেখ্য, এই রাস্তা দিয়ে দেবোত্তর গ্রামের এবং পার্শবর্তী সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের শতশত মানুষ প্রতিদিন চলাচল করেন। কিন্তু গ্রামবাসীকে না জানিয়ে সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন ওরফে ইতু আটঘরিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আজিজুল গাফ্ফার, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা বলে পরিচিত জাহিদ হোসেন এর সহযোগীতায় তাদের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়। এর ফলে চরম দুর্ভেগে পড়েন তারা।