যে কারণে পাবনা পৌরসভায় জামায়াত নেতার মনোনয়ন বাতিল

আসন্ন পাবনা পৌরসভায় জামায়াত নেতার মনোনয়ন বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। দলীয় প্রতীক না থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চেয়েছিলেন পাবনা পৌর জামায়াতের সেক্রেটারি মুহাম্মদ রকিব উদ্দিন।

কিন্তু মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ের শেষ দিন রবিবার (৩ জানুয়ারি) ৭ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে শুধু জামাত নেতার মনোনয়ন বাতিল করা হয়। বৈধ ঘোষণা করা হয় বাকি ৬ প্রার্থীর মনোনয়ন। বৈধদের মধ্যে আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মনোনয়ন প্রত্যাশী রকিব উদ্দিন পাবনা বার্তা ২৪ ডটকমকে জানান, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ১০০ জন সমর্থকের স্বাক্ষর প্রয়োজন। আমি ১০০ জনের চেয়ে বেশি স্বাক্ষর দিয়েছি। কিন্তু নির্বাচন অফিস থেকে মাত্র ১ জনের বিষয়ে বলা হয়েছে যে, ‌‘আমি তার কাছ থেকে জোর করে বা ইচ্ছার বিরুদ্ধে স্বাক্ষর নিয়েছি।’ এমনটা কারণ দেখিয়ে শুধু আমার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।’

আপিল করবেন কি-না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এবিষয়ে আইনজীবীদের সঙ্গে আলোচনা চলছে। তবে যেভাবে বা যে প্রক্রিয়ায় আমার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে, তাতে আমি নির্বাচন করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছি।’

নির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া নিয়ে জেলা নির্বাচন অফিসার মো. মাহাবুববুর রহমান জানান, প্রাথমিকভাবে দাখিলকৃত মনোনয়নপ্রত্র যাচাই বাছাই শেষে একজন মেয়র ও দুইজন সংরক্ষিত নারী ও ছয় জন সাধারণ কাউন্সিলর পদের প্রার্থীর মনোনয়পত্র বাতিল করা হয়েছে। তবে আগামী তিন দিনের মধ্যে তারা আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রার্থীতা বহাল রাখার জন্য নির্বাচন কমিশন বরাবর আপীল করতে পারবে।