পাবনা থেকে পালিয়ে গিয়েও শেষ রক্ষা হলো সেই ছাত্রলীগ নেতার!

পিস্তল হাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছবি পোস্ট করে ভাইরাল হওয়া সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবু বক্কার সিদ্দিকী রাতুলকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। রোববার (৮ মে) রাতে রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানা এলাকার গ্র্যান্ড তোফা হল ভবনে আত্মীয়ের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব-৫-এর একটি দল।

আবু বক্কার সিদ্দিকী রাতুল পাবনার সুজানগর উপজেলার নাজিরগঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ও মানিকহাট ইউনিয়নের গাবগাছী গ্রামের মোস্তফা কামাল বাবুর ছেলে। রাতুল সুজানগর উপজেলার মানিকহাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতি। সদ্য বিলুপ্ত হওয়া পাবনা জেলা ছাত্রলীগের কর্মসূচি ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন তিনি।

র‍্যাব বলছে, রাতুল বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ব্যানার ব্যবহার করে এলাকায় অপকর্ম করে আসছিলেন। তার নামে অপহরণের মামলাও রয়েছে। সোমবার (৯ মে) বেলা ১১টার দিকে র‍্যাব-৫ সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‍্যাব-৫-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল রিয়াজ শাহরিয়ার।

তিনি বলেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবু বক্কার সিদ্দিকী রাতুলের অস্ত্র হাতে ছবিগুলো ফেসবুক ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পরপরই র‍্যাব তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজশাহী বোয়ালিয়া থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরবর্তীতে নগরীর সাগরপাড়া এলাকার একটি পুরোনো পরিত্যক্ত জমিদারবাড়ি থেকে ১টি বিদেশি পিস্তল, ১টি ম্যাগজিন ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে রাতুল জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করতে এবং ভয়-ভীতি দেখাতেই এসব ছবি তিনি ফেসবুকে দিয়েছিলেন। ওই অস্ত্রের উৎস তদন্ত করে দেখছে র‍্যাব।