করোনায় পাবনা জেলা শ্রমিক দল সভাপতির মৃত্যু

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পাবনা জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মো. ওসমান গনি খান (৫৫) মারা গেছেন। শনিবার (১৯ জুন) বিকেলে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

পাবনা জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তসলিম হাসান খান সুইট গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ওসমান গনি খান বেশ কিছুদিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্টসহ করোনা জটিলতায় ভুগছিলেন। সপ্তাহ খানেক আগে তাকে পাবনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত চারদিন আগে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনার নমুনা দিলে পরদিন ফলাফল পজিটিভি আসে। এরপর তিনি হাসপাতালেই চিকিৎসা নিতে থাকেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার সকাল থেকে শ্বাসকষ্ট বেড়ে অবস্থার আরও অবনতি হয়। বিকেলে তার মৃত্যু হয়।

ওসমান গনি পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের মো. তুরাব আলীর ছেলে। জেলা শহরে ভাড়া বাসায় তিনি বসবাস করতেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। তিনি জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি ছিলেন। তিনি কেন্দ্রীয় শ্রমিক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক পদেও রয়েছেন।

এ বিষয়ে পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মনিসর চৌধুরী জানান, করোনায় ওসমান গনি খানের মৃত্যুর বিষয়টি তিনি অবহিত নন। এ বিষয়ে খোঁজ নেবেন তিনি।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, পাবনায় গত ২৪ ঘন্টায় ৩৭ জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। জেলায় এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৫৬৪ জন। এছাড়াও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩ হাজার ৩৩৩ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ২২ জন। হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন আছেন ৬৮ জন।