পাবনায় ৫ মোটরসাইকেল চোর আটক, ৪টি মোটরসাইকেল উদ্ধার

পাবনায় আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় চুরিকৃত ৪টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

পাবনায় সম্প্রতি বিভিন্ন স্থান থেকে মোটারসাইকেল চুরির ঘটনার অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশেষ অভিযানে নামে পুলিশ। এরই আলোকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত থেকে দুপুর পর্যন্ত পাবনা পৌর এলাকাসহ আতাইকুলা থানার বিভিন্ন স্থানে অভিযান করে পুলিশ।

আটককৃত চোর চক্রের সদস্যরা অন্যজেলার চোরাইকৃত মোটরসাইকেল নিজ জেলায় নিজেদের হেফাজতে এনে সময় সুযোগ বুঝে বিক্রি করে থাকে। আর এই জেলার চোরাইকৃত মোটারসাইকেল অন্যজেলার চোরদের কাছে বিক্রি করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা মোটরসাইকেল চুরির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

আটককৃতরা হলেন- পাবনা পৌর এলাকার অটুয়া হাউজ পাড়া মহল্লার -মোঃ আকরাম হোসেন এর ছেলে মোঃ আমির হোসেন প্রান্ত (২৫), পাবনা টাটিপাড়া এলাকার মৃত, সেকেন্দার আলী বিশ্বাসের ছেলে মোঃ হৃদয় বিশ্বাস অপু (২৪) একই এলাকার মোঃ লেয়াকত আলী মোল্লার ছেলে ছেলে মোঃ বাদশা আলম(২২), মোঃ মোস্তফা খান এর ছেলে মোঃ অনিক খান(১৯) ও পাবনা আতাইকুলা থানার মোঃ আব্দুল রাজ্জাক প্রামানিক এর ছেলে মোঃ নয়ন হোসেন পাপ্পু(২০)।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসিম আহম্মেদ বলেন, সম্প্রতি সময়ে পাবনাতে বেশ কিছু মোটরসাইকেল চুরি সংঘটিত হয়। জেলার বিভিন্ন থানাতে এই সকল চুরির ঘটনায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগিরা। এরই আলোকে এই চোরচক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের জন্য পাবনা জেলা পুলিশের অভিভাবক জেলা পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান স্যারের পরিকল্পনা ও নির্দেশক্রমে একটি বিশেষ টিম গঠন করা হয়।

এই টিম বিগত বেশ কিছুদিন বিভিন্ন সূত্র ও মোবাইল ফোন ট্রেকিং এর মাধ্যমে তাদের সনাক্ত করে চোরাই মোটরসাইকেলসহ তাদের আটক করতে সক্ষম হয়। এরা বয়সে কিশোর বা তরুণ হলেও সকলেই আন্তঃজেলা চোরাই মোটারসাইকেল চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য। এই চোরের দল এই জেলার মোটরসাইকেল চুরি করে অন্যজেলাতে বিক্রি করে। আর অন্যজেলার চোরাইকৃত মোটারসাইকেল এই জেলাতে বিক্রি করে। এদের পেছনে অনেক বড় একটি চক্র কাজ করছে। যাদের ধরার জন্য আমাদের অভিযান অব্যহত রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আগামীকাল আটককৃত চোরদের বিজ্ঞ আদালতের নেয়া হবে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিজ্ঞ আদালতের কাছে রিমান্ড আবেদন করা হবে। রিমান্ড মঞ্জুর হলে তাদের নিয়ে আমরা আবারোা অভিযান পরিচালনা করবো। প্রথম পর্যায়ের এই অভিযানে আমার সাথে সদর পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আবুল কালামসহ সাদা এবং পুলিশি পোশাকের সদস্যরা অংশ নিয়েছে।

উদ্ধাকৃত মোটরসাইকেল গুলো হল, ১৫০ সিসি লাল, কালো ও নীল রংয়ের তিনটি পালসার, ১৫০ সিসির ইয়ামাহা আর ওয়ান ফাইভ একটি ও কালো রং এর ১৫০ সিসি ডিসকোভার।

>> পাবনার নিয়মিত ভিডিও পেতে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল আইকনটি চালু করুন। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন