পাবনায় সংসার ভাঙার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ, লজ্জায় গৃহবধুর আত্মহত্যা

পাবনার আটঘরিয়ায় কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় সংসার ভেঙ্গে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ছোট ভাইয়ের স্ত্রী রত্না খাতুনকে ধর্ষণ। লোক লজ্জার ভয়ে কাউকে বলতে না পারায় বিষপানে আত্মহত্যা করেছে রত্না খাতুন।

এঘটনায় মেয়ের বাবা হানিফ বাদী হয়ে আটঘরিয়া থানায় ২০০০ইং সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী/০৩) এর ৯(১) রজু করা হয়েছে। মামলা নং-০১। তারিখ ১ জানুয়ারি ২০২১ ইং।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মাজপাড়া ইউনিয়নের কুমারগাড়ী গ্রামের আবু হানিফের মেয়ে রত্না খাতুনের সাথে প্রায় ছয় মাসে পূর্বে বিয়ে হয় দূর্গাপুর দেবোত্তর(কাকমারী) গ্রামের বেলাল উদ্দিনের ছেলে ট্রাক চালক স্বপনের।

স্বপন ট্রাক চালক হওয়ায় তাকে বিভিন্ন সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে থাকতে হয়। রত্না খাতুনের স্বামী স্বপন বাড়ীতে না থাকায় এই সুযোগ নিয়ে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন স্বপনের বড় ভাই রঞ্জু মোল্লা(৩০)। এক পর্যায়ে লম্পট রঞ্জু মোল্লা রত্নার সঙ্গে বারং বার গোপনে খারাপ সর্ম্পক গড়ে তোলার চেষ্টা করে।

এরই ধারাবাহিকতায় রত্নার স্বামী স্বপন বাড়ীতে না থাকায় লম্পট রঞ্জু মোল্লা গত ৫ ডিসেম্বর ২০২০ইং রাত অনুমানিক সাড়ে ৯টার সময় রত্না খাতুনের বসত ঘরে প্রবেশ করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে শরীরের কাপড় চোপর টানা হেচড়া করে ছিড়ে ফেলে ধর্ষন করে। এই বিষয়টি রত্না খাতুন কাউকে বললে তার ভাইয়ের সাথে সংসার করতে দিবে না বলে হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে লম্পট রঞ্জু মোল্লা। এঘটনার পর থেকে রত্না খাতুন মানুষিক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে।


গত ১১ ডিসেম্বর ২০২০ইং তারিখে স্বপন স্ত্রী রত্না খাতুনের অসুস্থার কথা শশুড় হানিফ জানাই। এসময়রত্না খাতুনকে তার বাবার বাড়ীতে আনা হয় এবং তাকে অসুস্থতার কথা জিজ্ঞাসা করলে সে জানায় স্বপনের বড় ভাই রঞ্জু মোল্লা(ভাসুর) আমাকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষন করেন। পরে রত্না খাতুন লোকলজ্জার ভয়ে ঘাসমারা বিষ গত ২৫ ডিসেম্বর ২০২০ইং তারিখে বেলা সাড়ে ১১টার সময় ঘরের মধ্যে ছটফট করতে থাকলে একপর্যায় জানতে পারি রত্না খাতুন বিষপান করেছে।

তাকে প্রথমে মুলাডুলি ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনষ্টি সেন্টারে ভর্তি করা হয়। এসময় রত্না খাতুনের শারীরিক অবস্থা অবনতি হলে ওই রাত সাড়ে ৯ টার সময় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ৩ জানুয়ারি ২০২১ইং তারিখে রাত সাড়ে ১১পার সময় চকিৎসাধীন অবস্থায় রত্না খাতুনের মৃত্যু হয়। গত ৪ জানুয়ারি ২০২১ ইং তারিখে তার ময়না তদন্ত সম্পর্ন হয়। এঘটনার সাথে জড়িত স্বপনের বড় ভাই রঞ্জু মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে পাবনা জেলা হাজতে প্রেরন করেছে পুলিশ।