পাবনায় নির্বাচনী ডিউটি পাইয়ে দিতে ঘুষ!

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আনসার ও ভিডিপি (খন্ডকালীন) সদস্য হিসেবে ডিউটি পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।





উপজেলার অষ্টমনিষা ইউনিয়নের আনসার ও ভিডিপির দলপতি আবুল কাশেম প্রত্যেকের কাছ থেকে ১ হাজার টাকা করে নিয়েছেন বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে দুইজন ভুক্তভোগী আজ রবিবার লিখিত অভিযোগ করেছেন। এছাড়া অন্যান্য ইউনিয়নে এই ঘুষ নেওয়ার বিষয়ে অনেকেই মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ ও ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আগামী ২৬ ডিসেম্বর ভাঙ্গুড়া উপজেলার চারটি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এসব ইউনিয়নের ৩৬ টি কেন্দ্রে ৫ শতাধিক আনসার ও ভিডিপি সদস্যা নিরাপত্তার কাজে দায়িত্ব পালন করবেন। উপজেলা আনসার ও ভিডিপি অফিস প্রত্যেক সদস্যকে প্রায় দুই হাজার টাকা ভাতায় চারদিনের জন্য নিয়োগ দিবেন। তবে এই নিয়োগ পেতে দ্বিগুণ মানুষ চেষ্টা করেন। এই সুযোগে অষ্টমনিষা ইউনিয়নের দলপতি আবুল কাশেম প্রত্যেকের কাছ থেকে তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করতে উপজেলা অফিসের নামে এক হাজার করে টাকা তোলেন।

কিন্তু টাকা দেওয়ার পরও অষ্টমনিষা ইউনিয়নের শাহানগর গ্রামের লিয়াকত হোসেন ও বাচ্চু মিয়া নামে দুই ব্যক্তি ডিউটি না পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। ভুক্তভোগী লিয়াকত হোসেন বলেন, ইউনিয়নের সবার কাছ থেকেই দলপতি টাকা নিয়েছে। এর পরেও আমরা অনেকেই বাদ পড়েছি। তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে দলপতি আবুল কাশেমকে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে উপজেলা আনসার ও ভিডিপি অফিসার খাইরুন নাহার খুশি বলেন, ইউনিয়ন দলপতিদের মাধ্যমে লোক ডাকা হয়েছে। এক্ষেত্রে তারা অনিয়ম করলেও আমাদের জানা নেই। তবে ডিউটি পেতে উপজেলা অফিসে কোনো টাকা দেওয়া লাগে না।

উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা নাহিদ হাসান খান বলেন, নির্বাচনের ডিউটি পাইয়ে দিতে টাকা নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

error: কাজ হবি নানে ভাই। কপি-টপি বন্ধ