পাবনার সেই আ.লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান কোরবান স্বপদে পুনর্বহাল

করোনাকালে ২২৯ বস্তা ভিজিডির চালসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালারচর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কোরবান আলীকে দলীয় স্বপদে পুনর্বহাল করা হয়েছে।

চলতি বছরের ৬ মে রাতে মাসুমদিয়া ইউনিয়নের বাঁধেরহাট এলাকায় তাঁর ব্যক্তিগত গুদাম থেকে চালের বস্তাগুলো জব্দ করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এরপর পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় আওয়ামী লীগের নির্দেশে গত ১৪-০৪-২০ ইং তারিখে ঢালারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ কোরবান আলী সরদার কে তার দলীয় পদ হতে আজীবন অব্যাহতি প্রদান করেন।

দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, কোরবান আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় অর্থাৎ তার বিরুদ্ধে যে মোকদ্দমা দায়ের করা হয় তা তদন্ত সাপেক্ষে মিথ্যা প্রমানিত হওয়ায় তাকে মামলার দায় হতে অব্যাহতি প্রদানে খালাস হওয়ায় কেন্দ্রিয় আওয়ামীলীগের নির্দেশে তার দলীয় সকল পদের অব্যাহতির প্রত্যাহর পূর্বক তাকে স্ব পদে বহাল রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এডঃ ম,আ, আহাদ বাবু এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এতে বেড়া উপজেলায় নেতা কর্মীদের মাঝে উৎসহ ও খুশীর আমেজ বিরাজ করছে। উল্লেখ্য বেড়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেন তার পক্ষ নেওয়ায় তাকেও বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ থেকে দলীয় নির্দেশনায় অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল।

বেড়া উপজেলার চাকলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক হোসেন বলেন, সকল ষড়যন্তের কুয়াশা কেটে সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে কোরবান আলী সরদার নির্দোষ প্রমানিত হয়েছে। এখন আমরা বেড়া পৌর মেয়র আব্দুল বাতেনের অব্যাহতি প্রত্যাহারের জন্য কেন্দ্রিয় কমিটি ও কর্ণধারদের অনুরোধ জানাবো তাকে পুণরায় পদ প্রত্যাহার পূর্বক স্ব পদে বহালের জন্য।

বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মতিউর রহমান মজনু বলেন, বেড়া পৌর মেয়রের অব্যাহতি প্রত্যাহার ও স্ব পদে বহালের জন্য বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কেন্দ্রিয় নেতাদের অনুরোধ করছি। আশা করি খুব শীর্ঘই মেয়রের বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসবে। এতে বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্য্যক্রম পুণরায় এগিয়ে যাবে।