পাবনার সাংবাদিকতা জাতীয় মানের: অ্যাটকো সভাপতি

বেসরকারী টেলিভিশিন মালিকদের সংগঠন অ্যাটকোর সভাপতি ও মাছরাঙা টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক  বীরমুক্তেিযোদ্ধা অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু বলেছেন, পাবনার সাংবাদিকতা জাতীয় মানের। ঐতিহ্যবাহী পাবনা প্রেসক্লাবের ৬০ বছর পুর্তি অনুষ্ঠানে সকল সহযোগিতা করা হবে।

তিনি পাবনা প্রেসক্লাবের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ক্লিন ফিড চালু থাকলে দেশীয় টেলিভিশন লাভবান হবে। ফলে দেশে টেলিভিশন সম্প্রচারে ক্লিন ফিড বাস্তবায়তি হওয়ায় লাভবান হবে দেশের বেসরকারী টেলিভিশন শিল্প। তারা এবং সরকার উভয়েই পিবুল পরিমান রাজস্ব পাবে।

টানা দ্বিতীয়বারের মত বেসরকারী টেলিভিশন মালিকদের সংগঠন অ্যাটকোর সভাপতি পুন:নিবার্চিত হওয়ায় গতকাল রোববার দুপুরে শহরের আরমান সেন্টারে পাবনায় র্কমরত সাংবাদিকদের পক্ষ দেয়া এক সংর্বধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলনে।

অঞ্জন চৌধুরী আরো বলেন, টেলিভিশন খাতকে এগিয়ে নিতে সেটটপ বক্স প্রদান ও দেশীয় চ্যানেলগুলোকে পে চ্যানেলে রূপান্তর সম্ভব হলে, টেলিভিশন শিল্পের গুণগত পরিবর্তন আসবে। এতে প্রতিষ্ঠানগুলোতে কর্মরতদের চাকুরীর নিরপত্তাসহ অর্থনৈতিক ভাবে সাবলম্বী হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হবে।

পরে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁকে ফুল ও ক্রেষ্ট দিয়ে সংর্বধতি করা হয়।

পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে সংবর্ধণা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন এবং উপস্থিত ছিলেন পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি, পাবনা প্রেসক্লাব সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদ সভাপতি আব্দুল মতীন খান ও সাধারণ সম্পাদক শহীদুর রহমান শহীদ, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রুমী খন্দকার, দৈনিক বিবৃতি সম্পাদক ইয়াসিন আলী মৃধা রতন, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আখতারুজ্জামান আখতার, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সম্পাদক আখিনুর ইসলাম রেমন, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সম্পাদক উৎপল মিজার্, পাবনা প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইয়াদ আলী মৃধা পাভেল, ক্রীড়া সম্পাদক কলিট তালুকদার, কল্যাণ সম্পাদক সরোয়ার মোর্শেদ উল্লাস, দফতর সম্পাদক মোখলেছুর রহমান খান বিপ্লব, প্রেসক্লাবের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কুদ্দুস চঁাদু, দি নিউ নেশন এবং আরটিভির প্রতিনিধি আবুল কালাম আজাদ, বাসস ও ভোরের কাগজ প্রতিনিধি রফিকুল ইসলাম সুইট, প্রেসক্লাব সদস্য ও দৈনিক খোলা কাগজের জেলা প্রতিনিধি আব্দুল জব্বার, দৈনিক আজকের ইতিহাস সম্পাদক ও প্রকাশক আবু হাসনা মুহম্মদ আইয়ুব, অনলাইন পত্রিকা নতুন চোখ প্রকাশক ও বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি এস এম আলম, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহবুব মোর্শেদ বাবলা, দি নিউ এইজ পত্রিকার প্রতিনিধি মাহফুজ আলম, মাছরাঙা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম রিজু, দেশ টিভির জেলা প্রতিনিধি জি কে সাদী, দৈনিক যায় যায় দিনের জেলা প্রতিনিধি আরিফ আহমেদ সিদ্দিকী, আমাদের সময় প্রতিনিধি সুশান্ত কুমার সরকার, চ্যানেল টয়েন্টি ফোর এবং আজকের পত্রিকা প্রতিনিধি শাহীন রহমান, গাজী টিভির ইমরোজ খন্দকার বাপ্পী, এটিএন নিউজের রিজভী জয়, এশিয়ান টিভির শফিক আল কামাল, আনন্দ টিভির সেলিম মোর্শেদ রানা, এ যুগের দ্বীপ পত্রিকার বাতার্ সম্পাদক নবী নেওয়াজসহ বিভিন্ন মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দ।