পাবনায় বছরের প্রথম বৃষ্টি, প্রথম দিনেই ঢল

টানা কয়েক দিনের তীব্র তাপদাহ অতিষ্ঠ জনজীবন। কিছুতেই দেখা মিলছিলো না বৃষ্টির। অবশেষে তীব্র তাপদাহের পর বছরের প্রথম বৃষ্টির দেখা পেল পাবনাবাসী। এ যেন পাবনা শহরে রীতিমতো বৃষ্টির ঢল নেমেছে।

শুক্রবার (৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে হঠাৎ করেই দেখা দেয় কালো মেঘ।  কয়েক মিনিটের ব্যবধানে শুরু হয় তীব্র বাতাস। আকাশে কালো মেঘের ঘনঘটায় অন্ধকার নেমে আসে গোটা শহরে। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে শহর।

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে প্রথমে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি, এরপর মুষলধারায় বৃষ্টি শুরু হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাবনা শহরে বৃষ্টি হচ্ছিল।

এদিন সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থানে আকাশ কিছুটা মেঘলা হয়ে ছিল। দুপুরে কিছুটা গরম থাকলে, দিনের অন্যান্য সময়ের তাপমাত্র ছিল নাতিশীতোষ্ণ।

শুক্রবার (৯ এপ্রিল) সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, রাঙ্গামাটি ও কুমিল্লা অঞ্চলসহ রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে।

এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে।

বৃহস্পতিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহী ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল নেত্রকোনা ১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজারহাটে সর্বোচ্চ ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। ময়মনসিংহে ১৫, শ্রীমঙ্গলে ১৩ আর নিকলীতে ১২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।