পাবনায় ইফতার খেয়ে ৯ বিচারকসহ ৩০ জন অসুস্থ, ৩ জন‌ গ্রেফতার

পাবনা শহরের অভিজাত একটি রেস্টুরেন্টের ইফতার খেয়ে জেলার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতের ৯ বিচারকসহ অন্তত ৩০ জন অসুস্থ হয়েছেন। অসুস্থদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর, তাদেরকে বিভিন্ন হাসপাতাল-ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় অভিযুক্ত মালিকসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) রাতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়। এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় পাবনা কোর্ট চত্বরে পাবনা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতের এক বিচারকের বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিদায় ও ইফতার খেয়ে অসুস্থের এঘটনা ঘটে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- শহরের রুপকথা রোডের কাশমেরী ফুড গার্ডেনের স্বত্ত্বাধিকারী হাসানুর রহমান রনি, ম্যানেজার সাব্বির হোসেন ও নাজমুস সাদাত মাসুদ।  গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে নিরাপদ খাদ্য আইন-২০১৩ এর ৩৩ ধারায় মামলা দায়ের করে বৃহস্পতিবার রাতেই কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম জানান, বুধবার সন্ধ্যায় পাবনা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতের একজন বিচারকের বিদায় অনুষ্ঠানকে উপলক্ষে এক বিদায় ও ইফতারের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট গোলাম কিবরিয়াসহ তার অধীনস্থ আদালতের সকল বিচারক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সবাই শহরের রূপকথা রোডের কাশমেরী ফুড গার্ডেন থেকে আনা ইফতারির খেলে একে একে সবাই অসুস্থ হয়ে পড়েন। বুধবার রাতে তাদের মধ্যে ৬ জনকে পাবনার শিমলা হাসপাতালে চিকিৎসা ও পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়। অন্যরা নিজ নিজ বাসায় চিকিৎমসা নিচ্ছেন।

পাবনার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট (এসিজেএম) মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, তিনি ও তার স্ত্রী ইফতারের খাবার খেয়ে চরম অসুস্থ হয়ে বেসরকারী এই হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। তিনি নিজে বাদী হয়ে পাবনা সদর থানায় মামলা দায়ের ও গ্রেফতারি পরোয়ানার পর পুলিশ শহরের ওই রেস্টুরেন্টের মালিক, ম্যানেজারসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে।

পাবনা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, শহরের একটি হোটেল থেকে ইফতারি খেলে চিফ জুডিশিয়াল  মেজিস্ট্রেট গোলাম কিবরিয়ার সাথে  ৯ জন বিচারকসহ অন্তত ৩০ জন অসুস্থ হয়েছে। তাদের শহরের বিভিন্ন হাসপাতাল-ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে আইনজীবীরা আদালতে মামলা করলে সমন জারির কপি আমাদের হাতে এলে আমরা হোটেল মালিকসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসি। পরে রাতেই তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে পাবনা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।