পাবনায় আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর বাড়ি-অফিসে ভাঙচুর-গুলিবর্ষণ, মোটরসাইকেলে আগুন

পাবনার সুজানগরে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র (আ.লীগের বিদ্রোহী) প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, গুলিবর্ষণ ও ৫ মোটরসাইকেলে আগুন দেয়ার অভিযোগ উঠেছে নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ সময় হামলাকারীদের প্রতিহত করতে গিয়ে আহত হয়েছেন ১০ জন।

শনিবার রাতে উপজেলার সিন্দুরি বরুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, উপজেলার সাগরকান্দি ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহীন চৌধুরী। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তৈয়ব আলী শেখ। কয়েক দিন ধরেই উভয়পক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। শনিবার সন্ধ্যার দিকে তৈয়ব আলী শেখের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর চালায় প্রতিপক্ষের সমর্থকরা। এ সময় কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করা হয়। আগুন ধরিয়ে দেয়া হয় পাঁচটি মোটরসাইকেলে। হামলা প্রতিহত করতে গিয়ে আহত হন ১০ জন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈয়ব আলী শেখ অভিযোগ করে বলেন, নৌকার প্রার্থী শাহীন চৌধুরীর নির্দেশে তার সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে। আমার নির্বাচনের কাজে ব্যবহৃত চারটি মোটরসাইকেল তারা আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। আমার বসতবাড়িতেও ভাঙচুর চালিয়ে নগদ টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। আশপাশোর লোকজন এসে আগুন নিভিয়েছে।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহীন চৌধুরী বলেন, আমার নির্বাচনী প্রচার মিছিলের ওপরে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে। গুলিবর্ষণ করেছে। এখন উল্টো আমার নামেই মিথ্যা বলছে। আমার কোনো নেতাকর্মী এ কাজ করেনি।

আমিনপুর থানার ওসি রওশন আলী বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমরা তদন্ত করছি। অভিযোগের আলোকে তদন্ত শেষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে কোন প্রকারের সহিংসতা ও আইন শৃঙ্খলার অবনতি মেনে নেয়া হবে না। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।