নানা-মামাদের বিরোধ মেটাতে গিয়ে ছাত্রলীগ নেতা হাসপাতালে

পাবনার ঈশ্বরদীর মুলাডুলি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন খান হৃদয় (২২) গুলিবিদ্ধ হয়েছে। সে মুলাডুলি খাঁ পাড়া গ্রামের ডাঃ স্বপন হোসেনের ছেলে।

মুলাডুলি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর সালাম মালিথা বাপ্পি জানান, শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে পাবনা সদর উপজেলার মালঞ্চি ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে সন্ত্রাসী হামলায় তিনি গুলিবিদ্ধ হন। গুরুতর অবস্থায় তাকে প্রথমে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

বাপ্পি মালিথা আরও জানান, পাবনা সদর উপজেলার মালঞ্চি ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে হৃদয়ের নানার বাড়ি। জমিজমার বিরোধের জের ধরে হৃদয়েরর নানা-মামাদের সঙ্গে প্রতিপক্ষের দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে দুই মোটরসাইকেল আরোহী এসে হৃদয়ের বুকে গুলি করে পালিয়ে যায়।

হৃদয়ের পরিবারের লোকজন জানান, শনিবার রাত ১টায় তার শরীরে অস্ত্রোপচার করা হয়। পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসিম আহমেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তার পরিবারের লোকজন চিকিৎসার জন্য ব্যায় রয়েছেন। অভিযোগ পাওয়ার পরই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত হৃদয়ের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।