নাগরিকত্ব দিলে অর্ধেক বাংলাদেশ খালি হয়ে যাবে: ভারতীয় মন্ত্রী

বাংলাদেশ নিয়ে প্রায়ই আপত্তিকর মন্তব্য করতে দেখা যায় হিন্দ্যুত্ববাদী ও দাঙ্গাবাজ বিজেপির অনেক নেতা। এবার মন্তব্য করলেন হিন্দ্যুত্ববাদী এই দলটি আরেক কেন্দ্রীয় নেতা ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি।

তার দাবি, ‘যদি ভারতের নাগরিকত্বের প্রতিশ্রুতি দেয়া হলে অর্ধেক বাংলাদেশ খালি হয়ে যাবে। বাংলাদেশের অর্ধেক মানুষই ভারত চলে আসবে’।

দেশটির বাংলা গণমাধ্যম এবিপি আনন্দ জানিয়েছে, সম্প্রতি হায়দ্রাবাদের সন্ত রবিদাস জয়ন্তী পালন অনুষ্ঠানে দেশটির বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে বক্তব্য দেয়ার সময় বাংলাদেশ নিয়ে এমন আপত্তিকর মন্তব্য করেন রেড্ডি। খবর র।

বিজেপি নেতা বলেন, ‘ভারতের নাগরিকত্ব পেতে অর্ধেক বাংলাদেশিই ভারতে চলে আসবে। তখন ওদের দায়িত্ব কে নেবেন, রাহুল গান্ধী নাকি কেসিআর?’

সিএএ- বিরোধী তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে এদিন রেড্ডি বলেন, ‘তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী প্রমাণ করুন কী করে এই আইন ১৩০ কোটি ভারতবাসীর স্বার্থবিরোধী হয়? সিএএ-তে ১৩০ কোটি ভারতবাসীর একজনের বিরুদ্ধেও যদি একটি শব্দ থাকে, তবে ভারত সরকার তা পর্যালোচনা করতে প্রস্তুত। তবে পাকিস্তানি বা বাংলাদেশি মুসলিমদের জন্য তা প্রযোজ্য নয়।’

কংগ্রেস ও কেসিআর দলকে আক্রমণ করে রেড্ডি বলেন, তারা অনুপ্রবেশকারীদের জন্য নাগরিকত্ব চান। তারা বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মুসলমানদের এ দেশের নাগরিকত্ব দেয়ার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন। কিন্তু আমরা বলছি, উদ্বাস্তু ও অনুপ্রবেশকারীদের কখনই এক সারিতে বসানো যায় না।’

রেড্ডি বলেন, ‘ভোটার আইডি কার্ড, আধার বা রেশন কার্ডের মতো নথিপত্র ও কোনো সুযোগসুবিধা ছাড়াই কিছু শরণার্থী গত ৪০ বছর ধরে ভারতে বসবাস করছেন।’