দেশে ভ্যাকসিন কিনতে বরাদ্দ হচ্ছে ৪ হাজার ৩২৪ কোটি টাকা

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস এর ভ্যাকসিন কয় ও সংরক্ষণে প্রস্তাবিত প্রকল্পের আওতায় মোট চার হাজার ৩১৪ কোটি ৪৯ লাখ ২৮ হাজার টাকা সংস্থান রাখার প্রস্তাব করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এই প্রস্তাবিত প্রকল্পের আওতায় চলতি বছরের জুন মাস পর্যন্ত ভ্যাকসিন কিনতে খরচ হবে ৩ হাজার ৩০ কোটি টাকা। বাকি অর্থ পর্যায় ক্রমে প্রকল্পের আওতায় খরচ করা হবে।

আগামীকাল মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি-একনেক’র সভায় প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে। গণভবন থেকে সভায় সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনা। সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী সচিব উপস্থিত থাকবেন।

প্রকল্পের পরিচালক ডাক্তার মোঃ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী গণমাধ্যমকে বলেন, প্রকল্পের আওতায় চার হাজার ৩১৪ কোটি কোটি টাকা ভ্যাকসিন পরিবহন ও সংরক্ষণ বাবদ রাখা হচ্ছে প্রকল্পটি মঙ্গলবার একনেক সভায় চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে ডিসেম্বরের মধ্যেভ্যাকসিন পাওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে পরিকল্পনা কমিশন কে অবগত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তবে কোভ্যাক্স কর্তিক নির্ধারিত কোন দেশ থেকে ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হবে তা এখনো জানা যায়নি।