পাবনায় স্কুলছাত্রীকে উত্যক্ত, গাছের সঙ্গে বেঁধে মেয়ের বাবার নির্যাতন

পাবনার আটঘরিয়া উপজেলায় অনিক হোসেন (১১) নামের এক শিশুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত কামাল হোসেন ভুঁইয়া (৪৫) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১০ মে) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে পাবনা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে সোমবার দিবাগত রাতে আটঘরিয়া পৌর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে আটঘরিয়া থানা পুলিশ। সোমবার (০৯ মে) সন্ধ্যায় আটঘরিয়া পৌরসভার বিশ্রামপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

আটঘরিয়া থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) হোসেন আলী জানান, পৌর এলকার উত্তরচক মহল্লার জাহানারা খাতুনের ৭ম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে অনিক হোসেন বিশ্রামপুর মহল্লার কামাল হোসেন ভুঁইয়ার ১০ম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে প্রতিদিনই স্কুলে যাওয়ার পথে উত্যক্ত করে। বিষয়টি মেয়ের পরিবার ছেলের পরিবারকে অবগত করে। পরিবার তাকে নিষেধ করলেও সে মেয়েকে পুনরায় উত্যক্ত করে। মেয়েটি স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে পরিবারকে জানালে অনিক হোসেনকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে মেয়েটির বাবা কামাল হোসেন গাছের সঙ্গে বেঁধে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন।

পরে এলাকাবাসীর হস্তক্ষেপে অনিক হোসেনকে উদ্ধার করে আটঘরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার খবর পেয়ে কামাল হোসেনকে রাতেই তার বাড়ি থোকে আটক করে পুলিশ।

আটঘরিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত অমানবিক। ছেলেটির সাথে যে আচরণ করা হয়েছে তা মোটেও ঠিক হয়নি। এমন ঘটনা আমরা লোকমুখে জানামাত্র অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছি। এ ঘটনায় আটঘরিয়া থানায় শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা হয়েছে। গ্রেফতার কামালকে মামলায় মাধ্যমে দুপুরে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এরপরও প্রকৃত ঘটনা আমরা তদন্ত করে দেখছি। প্রকৃত কারণ উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে।