করোনার মধ্যেই পাবনায় পদ্মা-মেঘনা-যমুনা আগমন, পরিবারে আনন্দের বন্যা

বিশ্বের মহামারী করোনার আতংকে মধ্যে পাবনায় পদ্মা মেঘনা যমুনার আগমনে একটি পরিবারে আনন্দের শেষ নেই। সোমবার রাতে পাবনার যমুনা জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারে একসাথে ফুটফুটে তিন জমজ কন্যা শিশুর জন্ম দিয়েছেন এক নারী। জমজ তিন শিশু ও প্রসুতি ভাল আছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার হাটখালী ইউনিয়নের নুরুদ্দিনপুর গ্রামের ইমরাম হোসেনের স্ত্রী আমেনা খাতুন গত শনিবার প্রসব বেদনা নিয়ে পাবনার যমুনা জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারের ভর্তি হন। সোমবার রাতে সিজারিয়ানের মাধ্যমে তিনি তিন জমজ কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। মা আমেনা খাতুন ও তিন শিশু এখন সুস্থ রয়েছে। পাবনার বিশিষ্ট গাইনি চিকিৎসক ডা. কাজী নাহিদা আক্তার লিপি এই সিজারিয়ান অপারেশন করেন।

জমজ সন্তানের মা আমেনা খাতুন বলেন, সারা পৃথিবীর করোনা ভাইরাসের সময় বাচ্চা প্রসব হবে। তাই নিয়ে অনেক চিন্তায় ছিলাম। কিন্তু আল্লার রহমতে খুব সুন্দরভাবে বাচ্চাদের জন্ম হয়েছে। পাবনার বিশিষ্ট গাইনি চিকিৎসক ডা. কাজী নাহিদা আক্তার লিপি জানান, বাচ্চারা এবং মা খুব ভাল আছে।