ঔষধ প্রশাসন ‌‘দেশের সঙ্গে শত্রুতা’ করছে: জাফরুল্লাহ

নিজেদের উদ্ভাবিত করোনা ভাইরাসের অ্যান্টিবডি কিটের নিবন্ধনে অনুমতি না দেয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্তি করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের  ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি বলেছেন, ‘ঔষধ প্রশাসন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিটের নিবন্ধন করার অনুমতি না দিয়ে জনগণের অধিকারের প্রতি অন্যায় ও দেশের প্রতি শত্রুতা করছে।’

শনিবার (২৭ জুন) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা বলেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দফতর প্রধান জাহাঙ্গীর আলম গণমাধ্যম এ বিজ্ঞপ্তি পাঠান।

এ ব্যাপারে সবার সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তীতে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলেও জানান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ এই নেতা।

বিএসএমএমইউ এর কার্যকারিতা পরীক্ষা শেষে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত জিআর কোভিড-১৯ র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিটের নিবন্ধন দেয়নি ঔষধ প্রশাসন।

এদিকে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শারীরিক অবস্থা ভালো আছে বলেও জানানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।  অধ্যাপক ডা. নাজিব মোহাম্মদের বরাত দিয়ে বলা হয়, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শরীরে জ্বর আছে। কথা বলেন আস্তে আস্তে। নিয়মিত এন্টিবায়োটিক দিতে হচ্ছে। নিয়মিত কিডনি ডায়ালাইসিস করছেন, শরীর দুর্বল। এখন কৃত্রিম অক্সিজেনের প্রয়োজন হয় না। তার শরীরে করোনাভাইরাস ইনফেকশন নাই। তবে নতুন ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে এবং তার ইনফেকশনও আছে। তাকে আরও বেশ কিছুদিন হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা নিতে হবে।

তিনি মানসিকভাবে বেশ উজ্জীবিত। গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী অধ্যাপক ডা. ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মামুন মোস্তাফি এবং অধ্যাপক ডা. নাজিব মোহাম্মদের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন।

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ