ফানুস আর আতশবাজির ঝলকে রঙ্গিন পাবনার আকাশ

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য স্থানের মতো পাবনা জেলাতেও উদযাপন হয়েছে নতুন বছর ও থার্টি ফাস্ট নাইট। রাত ১২ বাজার সঙ্গে সঙ্গেই ফানুস আর আতশবাজির ঝলকে রঙ্গিন হয়ে উঠে পাবনার আকাশ।

রাজধানী ঢাকাতে কঠোর নিষেধাজ্ঞা থাকলেও  পাবনায় থার্টি ফার্স্ট নাইটে ঘরের বাইরে উন্মুক্ত স্থানে কোন আয়োজনে কারো অংশ নেয়ার ব্যাপারে তেমন নির্দেশনা ছিল না বলেই বলা যায়। ফলে থামিয়ে রাখা যায়নি মানুষের উদযাপনকে।

রাত ঠিক ১২টায় আতশবাজির ঝলকে রঙ্গিন হয়ে উঠেছিল পাবনা শহরের আকাশ, পাশাপাশি পটকার শব্দে প্রকম্পিত হয়েছে বিভিন্ন এলাকা। আতশবাজি আর ধুম-ধাড়াক্কা শব্দে পাবনার আকাশ ছিলো প্রকম্পিত।

প্রশাসন থেকে বাসা-বাড়ির ছাদে আয়োজনে মানা থাকলেও অনেকেই ছাদে বারবিকিউ পার্টিসহ পারিবারিক নানা আয়োজন করেছেন নতুন বছরের প্রথম মূহুর্তটি স্মরণীয় করে রাখবার জন্য।

এছাড়াও পাবনাতে বড় ধরনের তারকা হোটেল না থাকলেও নিজেদের মতো করে আয়োজন করে ডিসকোসহ নানা আয়োজনে অংশ নিয়েছে উচ্চবিত্তের অসংখ্য মানুষ।

পাবনা শহরের অনেকেই জানিয়েছেন, তারা যে ভবনে বাস করেন সেখানকার বিভিন্ন ফ্লাটের অধিবাসীরা মিলে নানা আয়োজন করেছেন তাদের ভবনের ছাদে।

তারা জানান, সবাই মিলে উৎসব করেছি। খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন ছিল। নতুন বছরের শুরুতে আতশবাজি ছুড়েছি। সব মিলিয়ে দারুণ মজা করেছি আমরা।

পরিবারের সবাই মিলে এ আয়োজনে অংশ নিয়েছি যাতে ছিলো নানা গেমস, খাওয়া-দাওয়া, পটকা ফুটানো, ফানুস উড়ানো এবং কেক কাটা হয়েছে বলেও তারা জানা।