অতিরিক্ত ফি আদায়: পাবনায় সাংবাদিকদের ওপর অধ্যক্ষের দুর্বৃত্তদের হামলা-লাঞ্ছিত!

স্কুলে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি নেয়া হচ্ছে- এমন সংবাদের পেশাগত দায়িত্বপালন করতে গিয়ে কলেজের অধ্যক্ষের লেলিয়া দেয়া দুষ্কৃতিকারীরা সাংবাদিকদের হামলা করেছেন। এসময় দুষ্কৃতিকারিরা সাংবাদিকদের ভিডিও ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ তাদের ভিডিও ক্যামেরা উদ্ধার করে।

গত রবিবার পাবনার ঈশ্বরদীর উপজেলার সাহাপুরের বাঁশেরবাদা ডিগ্রী কলেজে এঘটনা ঘটে। দুষ্কৃতিকারীদের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন মোহনা টিভির সাংবাদিক হুজ্জাতুল্লা হীরা ও আনন্দ টিভির পাবনা জেলা প্রতিনিধি সেলিম মোর্শেদ রানা। এ ঘটনায় ঈশ্বরদী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

জানা গেছে, বাঁশেরবাদা ডিগ্রী কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায় করা হচ্ছিলো। এমন তথ্য জানার পর আনন্দ টিভির পাবনা জেলা প্রতিনিধি সেলিম মোর্শেদ রানা ও মোহনা টিভির পাবনা জেলা প্রতিনিধি হুজ্জাতুল্লা হীরা ওই কলেজের ছাত্রছাত্রীদের বক্তব্যের ভিডিও ফুটেজ ধারণ করার সময় কলেজের অধ্যক্ষের লেলিয়ে দেয়া ১০/১২ জনের একদল দুষ্কৃতিকারি তাদের উপর হামলা চালায়।

দুষ্কৃতিকারিরা তাদের লাঞ্ছিত ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ভিডিও ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। সাংবাদিকরা বিষয়টি পাবনার পুলিশ সুপারকে অবহিত করলে তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠান। পুলিশ দুষ্কৃতিকারিদের কাছ থেকে সাংবাদিকদের উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মোহনা টিভির সাংবাদিক হুজ্জাতুল্লা হীরা, আনন্দ টিভির পাবনা জেলা প্রতিনিধি সেলিম মোর্শেদ রানা ঈশ্বরদী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ঘটনার তীব্র নিন্দা-প্রতিববাদ ও এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এ,বিএম ফজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম পাবনা জেলা শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ পাবনায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা।