• আজ
  • শনিবার,
  • ২০শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং
  • |
  • ৭ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ


Text_2

পাবনায় গত দুই মাসে ৭২ শিশুর মৃত্যু

প্রকাশ: ১০ জানু, ২০১৮ | রিপোর্ট করেছেন নিজস্ব প্রতিবেদক

গত কয়েকদিনের অব্যাহত শৈত্যপ্রবাহ আর শীতের তীব্রতায় পাবনায় বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ। পাবনা জেনারেল হাসপাতালে গত দু’মাসে সাড়ে ৩ হাজার শিশু নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় ১০জন শিশু সহ নানা রোগে মোট ৭২টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরে সারাদেশে বেড়েছে শীতের তীব্রতা। তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় উত্তরের জেলা পাবনায় বইছে মৃদু শৈতপ্রবাহ। এ কারণে জেলায় দেখা দিয়েছে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়া রোগ। এ রোগে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা ছুটছেন বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স সহ সদরের পাবনা জেনারেল হাসপাতালে। কিন্তু সেখান থেকেও মিলছে না কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা। প্রতিদিনই অন্তত ৩/৪ জন শিশুকে রাজশাহী অথবা ঢাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানান্তর করা হচ্ছে। সেই সাথে জেনারেল হাসপাতালে দেখা দিয়েছে অক্সিজেনের সংকট। একত্রে তিনটি শিশুর জন্য ১টি অক্সিজেন সিলিন্ডিার ব্যবহার করা হচ্ছে।

জানা যায়, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট পাবনা জেনারেল হাসপাতালে শিশু ওয়ার্ডে শয্যা সংখ্যা মাত্র ৩৩টি। অথচ ফটো থেরাপি মেশিন বিকল থাকায় একটি বাল্ব জ্বালিয়ে তিনটি শিশুকে থেরাপি দেওয়া হচ্ছে। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের সিনিয়র স্টাফ নার্স রাবেয়া খাতুন জানান, শীতের শুরুতে অথাৎ গত নভেম্বরে এ হাসপাতালে ২ হাজার ২৫ জন শিশু ভর্তি হয় এবং ৪৪ শিশু’র মৃত্য হয়। তার মধ্যে নিমোনিয়া রোগে আক্রান্ত ৪ শিশু মার যায়।

এ ছাড়া ডিসেম্বরে ভর্তি ১ হাজার ৩৫ শিশুর মধ্যে মারা যায় ২৮ শিশু। তার মধ্যে ৬ জন শিশু’র মৃত্যু হয় নিমোনিয়া আক্রান্ত হয়ে। বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ১০ থেকে ১২ জন শিশু শীত জনিত ঠান্ডা রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছে হাসপাতালে। চিকিৎসকরা বলছেন শীতের শুরতে এবং শীতের শেষ দিকে শীত জনিত রোগে শিশু আক্রান্ত বৃদ্ধি পায়। অভিভাবকেরা সচেতন হলে শিশুর সুরক্ষা সম্ভব।