• আজ
  • বুধবার,
  • ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
  • |
  • ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ


Text_2

জামাই-শ্বশুড় দ্বন্দ্বে আবার উত্তপ্ত ঈশ্বরদী, বড় সংঘাতের আশঙ্কা

প্রকাশ: ৮ নভে, ২০১৭ | রিপোর্ট করেছেন নিজস্ব প্রতিবেদক

পাবনার ঈশ্বরদীতে শ্বশুড়-জামাই দ্বন্দ্ব আবারও প্রকাশ্য রূপ নিয়েছে। শ্বশুড় পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু এবং জামাই ঈশ্বরদী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিন্টুর আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ঈশ্বরদীর রাজনীতি আবারও সংঘাতে রুপ নিয়েছে।

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ দু’টি গ্রুপে বিভক্ত। তবে এ বিরোধ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ কিংবা ছাত্রলীগের নয়, বিরোধ মূলত জামাই-শ্বশুরে। প্রায় প্রতি দিনই এ দু’টি গ্রুপের মধ্যে সৃষ্ট বিবাদে ঈশ্বরদী এখন আতংকের শহরে পরিণত হয়েছে। মূলত ভূমিমন্ত্রীর গৃহবিবাদে ঈশ্বরদীর পরিবেশ এখন অস্থিতিশীল, ঘটছে হামলা-ভাংচুর, চাঁদাবাজিসহ হত্যার মতো ঘটনাও। জামাই না শ্বশুর, কে বেশি ক্ষমতাধর এলাকায় তার প্রদর্শন চলছে। উভয়পক্ষই প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন, হামলা-ভাংচুর সহ নানাভাবে পেশিশক্তির ব্যবহার করছে।

সর্বশেষ মঙ্গলবার (০৭ নভেম্বর) আধিপত্য নিয়ে তাদের সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়িয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এঘটনায় আহত হয়েছেন ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ রানা ওরফে জিএস রানা (৩৫), পৌর যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শাহীনুজ্জামান ওরফে ওস্তাদ শাহীন (৪২) ও উপজেলা যুবলীগ নেতা হাসান তারেক (৩০)।

প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা শাহীনুজ্জামান ওরফে ওস্তাদ শাহীনের হাত ও পায়ের রগ কর্তন ও কুপিয়ে মারাত্বক জখম করায় মঙ্গলবার ভোরেই মুমূর্ষু অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গুরুতর আহত অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে অপর ২ আওয়ামীলীগ ও যুবলীগ নেতাকে। মেয়র মিন্টুর অনুসারীদের দাবী, মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর সশস্ত্র ক্যাডার যুবলীগ নেতা লিংকন ও রুহুল আমীন কুদ্দুসের নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একদল সন্ত্রাসী এই হামলা চালিয়েছে।

আধিপত্য বিস্তারের কারণ হিসাবে আগামী সংসদ নির্বাচনে পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া উপজেলা) আসন থেকে দলীয় মনোনয়নের বিষয়টি নিয়েও নানা আলোচনা রয়েছে। অনেকেই মনে করেন, রাজনৈতিক উত্তরাধিকার প্রতিষ্ঠা নিয়েই মুলত জামাই-শ্বশুরের দ্বন্দ্ব শুরু। ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর জামাতা ও ঈশ্বরদীর পৌর মেয়র আবুল কামাল আজাদ মিন্টু চান শ্বশুরের জায়গায় স্থান পেতে। ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। তার পক্ষে রয়েছেন স্ত্রী কামরুন্নাহার শরীফ, ছেলে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিরহান শরীফ তমাল ও সাধারণ সম্পাদক রাজীব সরকার, ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান মিন্টু, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও মন্ত্রীর এপিএস বশির আহমেদ বকুল।

অন্যদিকে জামাই পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ঈশ্বরদীর পৌর মেয়র আবুল কামাল আজাদ মিন্টুর পক্ষে রয়েছেন ঈশ্বরদী উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান বিশ্বাস, শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা রশিদুল্লাহ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি যুবায়ের বিশ্বাস, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি সালাম খানসহ স্থানীয় ঠিকাদারদের বড় একটি অংশ।