• আজ
  • মঙ্গলবার,
  • ২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
  • |
  • ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ


Text_2

মঙ্গলবার থেকে অনুকূলচন্দ্রের আবির্ভাব মহোৎসব শুরু

প্রকাশ: ২৮ আগ, ২০১৭ | রিপোর্ট করেছেন নিজস্ব সংবাদদাতা

শ্রীশ্রীঠাকুর অনুকূলচন্দ্রের ১৩০ তম আবির্ভাব-তিথি ও ভাগীরথী পদ্মায় পুণ্যস্লান মহোৎসব উপলক্ষে পাবনায় শ্রীশ্রীঠাকুর অনুকূলচন্দ্র হিমাইতপুর আশ্রমে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে তিনদিনের মহোৎসব। মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এই মহোৎসব চলবে। এ উপলক্ষে হিমাইতপুর আশ্রমে নেয়া হয়েছে নানা আয়োজন।

আয়োজকরা জানান, প্রথমদিনে প্রত্যুষে সমবেত প্রার্থনা, সন্ধ্যায় শুভ অধিবাস ও সমবেত প্রার্থনা, বিশ্বকল্যাণে বিশেষ প্রার্থনা, ভক্তি সংকীর্ত্তন, কর্মী বৈঠক ও রামায়ণ গান। দ্বিতীয়দিনে থাকবে তারকব্রক্ষ নাম সঙ্কীর্তন, সমবেত প্রার্থনা, সদ্গ্রন্থাদি পাঠ ও ভক্তিগীতি, শ্রীশ্রীঠাকুর অনুকূলচন্দ্র, শ্রীব্রজগোপাল দত্তরায়, এম-এ, বি-এল, আষাঢ়-সংক্রান্তি, ১৩৪৬ বঙ্গাব্দ, পৃষ্ঠা-৪৭৯ আলোকে পুরুষোত্তমের শুভ ত্রিংশতী-উত্তর শততম জন্মলগ্নের স্মৃতিচারণ। ২য় দিনে ত্রিংশতি-উত্তর শত পুষ্পাঞ্জলি, প্রদীপ প্রজ্জ্বলন, শঙ্খধ্বনি, বন্দেপুরুষোত্তমম্ ধ্বনি ও উলুধ্বনি, সমবেত প্রার্থনা, বিশ্বকল্যাণে বিশেষ প্রার্থনা, পুরুষোত্তম প্রণাম অর্ঘ্যাঞ্জলি নিবেদন, জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সঙ্গীত, সৎসঙ্গ পতাকা উত্তোলন ও মাতৃবন্দনা, শ্রীঅনুকূলনবমী তিথি (তালনবমী) যোগে পুণ্যতোয়া ভাগীরথী পদ্মার তীর্থ-সলিলে স্লান-মহোৎসব, শ্রীশ্রীঠাকুরের জন্মস্থান প্রদক্ষিণ, ইষ্টসম্বর্ধনা, ঋত্বিক সম্মেলন, কিশোরমেলা, আনন্দবাজারে মহাপ্রসাদ বিতরণ, ধর্মসভা (ইষ্ট-জীবন-অনুকূলচেতনায়), সন্ধ্যার সমবেত প্রার্থনা ও রাত্রে লোকরঞ্জন অনুষ্ঠান। তৃতীয়দিনে থাকছে তারকব্রক্ষ নাম সঙ্কীর্তন, সমবেত প্রার্থনা, সদ্গ্রন্থাদি পাঠ, ভক্তি সংকীর্ত্তন, আনন্দবাজারে মহাপ্রসাদ বিতরণ, ধর্মসভা, সৎসঙ্গ চায় মানুষ শীর্ষক আলোচনা সভা, সমবেত প্রার্থণা, লোকরঞ্জন ও রামায়ণ কীর্ত্তনের মধ্যদিয়ে শেষ হবে এই মহোৎসব।

তিনদিনের এই মহোৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করবেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার মো. নুর-উল রহমান। অতিথি থাকবেন পাবনার জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো, পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির পিপিএম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার।

মহোৎসব উদযাপন কমিটির আহবায়ক ড. নরেশ মধু বলেন, ঠাকুরের ভক্ত অনুসারীরা নির্ভিঘ্নে সকল কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করবেন এমন প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। আশা করছি কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না। তিনি আইন শৃংখলা, নিরাপত্তার বিষয়ে জেলা পুলিশ প্রশাসনের নেয়া পদক্ষেপে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।