• আজ
  • শুক্রবার,
  • ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং
  • |
  • ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ


Text_2

শোরগোল আ’লীগের দূর্গে, নীরব বিএনপির ঘর

প্রকাশ: ৩১ জানু, ২০১৯ | রিপোর্ট করেছেন বিশেষ প্রতিনিধি, চাটমোহর

সাটানো হয়েছে পোস্টার, টাঙ্গানো হয়েছে ব্যানার। চাওয়া হয়েছে দোয়া-সমর্থন। দাবি করা হয়েছে, রাজপথের লড়াকু সৈনিক! স্থানীয় সংসদ সদস্যের আস্থাভাজন ও বিপ্লবি-ত্যাগী নেতা। পরপর তিনবার এমপি নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানানো হয়েছে মোঃ মকবুল হোসেনকে।  বলা হয়েছে, প্রচারে এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ!
শ’ শ’ পোস্টার-ব্যানারে ছেঁয়ে গেছে পাবনার-৩ সংসদীয় আসনের জনসমাগম স্থান, সড়কের পাশ এবং হাট-বাজার। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীদের নামে এ সব ব্যানার-পোস্টার টাঙ্গানো হয়েছে। বেশি ব্যানার দেখা যাচ্ছে রেলস্টেশনে।
এখনো তফশিল ঘোষণা হয়নি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের। কিন্তু মাঠে নেমে পড়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপজেলা ও ইউনিয়ন শাখার নেতারা।  শুরু করেছেন লবিং। যোগ দিচ্ছেন সামাজিক-সাংস্কৃতিক-ধর্মীয় অনুষ্ঠানে। প্রচারণা চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। সম্ভাব্য প্রত্যেক প্রার্থীই দলীয় মনোনয়নের চাচ্ছেন, দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসি, আশাবাদী।
চাটমোহরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড.শাখাওয়াত হোসেন সাখো, সাবেক এমপি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড.সামসুদ্দিন, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল হামিদ মাস্টার, চাটমোহর উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হোসেন ধনি এবং চাটমোহর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মির্জা আবু হায়াত মোঃ কামাল জুয়েল প্রার্থী হতে পারেন-জানা গেছে।
ভাঙ্গুড়া ও ফরিদপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হতে পারেন- অসমর্থিত সুত্র জানাচ্ছে এ তথ্য। ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থির সংখ্যা গত নির্বাচনের চেয়ে আসন্ন নির্বাচনে বেশি।
নির্বাচন নিয়ে যতটা শোরগোল পড়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের দুর্গে, ততটাই নীরব উপজেলা বিএনপির ঘর। উপজেলা বিএনপির নেতারা এ বিষয়ে নির্বাক। দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরেও কেউ নির্বাচন করবেন কি না- মুখে কুলুপ এঁটেছেন তারা। ২০০৯ সালের  উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চাটমোহর  উপজেলা পরিষদ ছিল আ’লীগের দখলে। ২০১৪সালে দখলে যায় উপজেলা বিএনপি। এবার কাদের দখলে যাচ্ছে উপজেলা পরিষদ- অঙ্ক কষছেন অনেকেই।