• আজ
  • বুধবার,
  • ২১শে আগস্ট, ২০১৯ ইং
  • |
  • ৬ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ


Text_2

নতুন সেতুতে ফাটল, নেই সংযোগ সড়ক

প্রকাশ: ২৩ জুলা, ২০১৯ | রিপোর্ট করেছেন মহিদুল খান, চাটমোহর

নির্মাণের বয়স  ১মাস পার না হতেই পাবনার চাটমোহরের রাউৎকান্দি-শ্রীদাসখালি সেতুতে দেখা দিয়েছে ফাটল। সেতুটি নির্মাণে অনিয়ম এবং নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে, মনে করছেন জনপ্রতিনিধিসহ এলাকাবাসী।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, সেতুর দেওয়ালে মোটা দাগে ফাটল ধরেছে। ভেঙ্গে গেছে রেলিং। বের হয়েছে রড। এছাড়া সংযোগ সড়কে নেই মাটি। এ সব কারণে সেতুটি এখনও ব্যবহার করতে পারছেন না এলাকাবাসী।
পার্শডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজাহার আলী বলছেন, অনিয়ম ও নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছিল, না হলে সেতুর এ অবস্থা হবে কেন?
সংশ্লিষ্ট সুত্র জানাচ্ছেন, সেতুটি নির্মাণ করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। সেতুটির দৈর্ঘ্য ৩২ফুট। নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ২৫ লাখ ৭৪ হাজার ৬৭৯টাকা।  সিরাজগঞ্জ জেলার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স সাজেদা এণ্ড আতাহার কাগজ-কলমে সেতুটির নির্মাণ কাজ পায়। কিন্তু কাজটি সম্পন্ন করে পাবনার চাটমোহরের প্রভাবশালী ঠিকাদার সিরাজুল ইসলাম। নির্মাণের সময় নকশাও পরিবর্তন করা হয়েছে সেতুটির, জানিয়েছে সুত্রটি।
সিরাজুল ইসলাম নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। বলেছেন, কাজ শেষ হওয়ার সাথে সাথেই মাটি ফেলার কারণে কিছুটা সমস্যা হয়েছে। তাড়াহুড়ো করে মাটি কেন ফেলা হলো- সদুত্তোর দেননি তিনি।
চাটমোহর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এস এম শামীম এহসান বলেন, সেতুর ফাটল অংশ আমি দেখেছি। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। ঠিকাদারকে ক্রুটিপূর্ণ কাজ মেরামত করে দিতে বলা হয়েছে।
ইউপি চেয়ারম্যান আজাহার আলী জানান, বিষয়টি পিআইও সাহেবকে জানিয়েছি।  মাসিক সমন্বয় সভায়ও এ নিয়ে কথা বলেছি।
চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অসীম কুমার সরকার বলেছেন, অভিযোগ পাওয়ার পর  উপজেলা প্রকৌশলীকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠণ করে দিয়েছি। অভিযোগের সত্যতা পেলে আইনগত কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।