• আজ
  • শুক্রবার,
  • ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং
  • |
  • ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ


Text_2

জেলায় পাবনাইয়া ফেসবুক গ্রুপের পবিত্র কোরআন বিতরণ

প্রকাশ: ১২ ফেব্রু, ২০১৯ | রিপোর্ট করেছেন প্রেস বিজ্ঞপ্তি

পাবনাইয়া ফেসবুক গ্রুপ সাম্প্রতিক সময়ের পাবনা জেলার অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ফেসবুক গ্রুপ যার সদস্য সংখ্যা দেড় লাখেরও বেশি। মূলত পাবনা জেলার আঞ্চলিক ভাষা চর্চা উদ্বুদ্ধ করার জন্য এই গ্রুপ যাত্রা শুরু করে। কিন্তু সময়ের চাহিদার আলোকে তারা নানাবিধ সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়। এই কর্মকাণ্ড গুলোর মধ্যে রয়েছে, ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীকে সহায়তা, রক্তদান কার্যক্রম, বিভিন্ন সামাজিক ইস্যুতে সচেতনতা তৈরি ইত্যাদি।

সম্প্রতি তারা সমগ্র পাবনা জেলার বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসা ও মক্তবে বিতরণ করেছে প্রায় ৫০ হাজার টাকা মুল্যের কুরআন শরীফ, নূরানী কায়দা ও তাফসীর।

এ সকল ধর্মীয় গ্রন্থ প্রদান কর্মসূচি সমন্বয়কারী ফয়সাল আহমেদ এর তথ্য মতে পাবনা জেলার ৯টি উপজেলার ৩৯টি মসজিদ ও মক্তবে এই বিতরণ কর্মকাণ্ড সাধিত হয়েছে। যার পুরো অর্থায়ন হয়েছে এই গ্রুপ সদস্যদের সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে।

এই কর্মসূচির আরেক সমন্বয়কারী শাকিল হোসেন জানান, এখানে মূলত অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে আর্থিকভাবে অসচ্ছল প্রতিষ্ঠান সমূহকে। প্রথমে এরূপ প্রতিষ্ঠান খুঁজে চিহ্নিত করে তারপর সেগুলোতে কোরআন শরীফ ও ধর্মীয় গ্রন্থগুলো বিতরণ করা হয়।

গ্রুপের অন্যতম সক্রিয় সদস্য সাদিয়া ইসলাম জানান, পাবনাইয়া ফেসবুক গ্রুপের অসাধারণ কার্যক্রম ছিল কোরআন বিতরণী কর্মসূচি। এই গ্রুপের এডমিনদের জন্য শুভ কামনা ও সামনে এমন কার্যক্রমের আশাবাদী এবং সব সময় পাশে থাকতে চাই।

এই গ্রুপের বিভিন্ন কার্যক্রম অত্যান্ত প্রশংসা করে অন্যতম সক্রিয় সদস্য হাদীউল ইসলাম বলেন, একদল তরুণ এডমিনের এরূপ সামাজিক কার্যক্রম সত্যই অনুকরণীয়।

সার্বিক বিষয়ে এই গ্রুপের ক্রিয়েটর এবং প্রধান এডমিন মহব্বত উল্লাহ্ বলেন, ফেসবুক কম বেশি সবাই ব্যবহার করেন, কিন্তু এর ইতিবাচক ব্যবহার নিশ্চিত করাই সবার দায়িত্ব। আর পাবনাইয়া গ্রুপ এর ইতিবাচক ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যে সকল অসচ্ছল মসজিদ মাদ্রাসায় কোরআন শরীফ বিতরণ করা হয়েছে, আশা করা যায় এর মাধ্যমে তারা খুবই উপকৃত হবেন। স্বল্পতা থাকা সত্ত্বেও সকলের সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে এরূপ একটি মহান কাজ সমাপ্ত হওয়ায় তিনি সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং গ্রুপের সকল এ্যাডমিনদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

তিনি সবার কাছে প্রত্যাশা করেন, পরিচ্ছন্ন, মানবিক ও সমৃদ্ধ প্রজন্ম গঠনে সব ধরনের সহযোগিতা নিয়ে সবাই পাশে থাকবেন।