• আজ
  • শনিবার,
  • ২৩শে মার্চ, ২০১৯ ইং
  • |
  • ৯ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ


Text_2

চাটমোহরে সংসদ নির্বাচনে আনসার নিয়োগেও টাকার বাণিজ্য!

প্রকাশ: ১ জানু, ২০১৯ | রিপোর্ট করেছেন চাটমোহর প্রতিনিধি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহনে সহায়তা করার জন্য চাটমোহর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে আনসার ভিডিপি সদস্য নিয়োগেও সংশ্লিষ্ট বিভাগের লোকদের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্বাচনে ডিউটি দেবার কথা বলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যের নিকট থেকে অনৈতিক ভাবে টাকা নিয়েও অনেককে ডিউটি দেওয়া হয়নি বলে এক অভিযোগে জানা গেছে।

অনেক গ্রাম পুলিশের নিকট টাকা নেয়ার পরেও ভোট গ্রহনের দায়িত্ব পালন করতে উপজেলা পরিষদে এসেও ফিরে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। অধিক টাকা নিয়ে অপ্রশিক্ষিত ও অযোগ্যদের দায়িত্বে নিযুক্ত করা হয় বলে অভিযোগ উঠছে। এমন ঘটনায় লিখিত আকারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন ভূক্তভোগী কয়েকজন গ্রাম পুলিশ।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ভোট গ্রহন কাজে নিযুক্ত করা হবে এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে চাটমোহর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়ন কমান্ডার মোজাফফর প্রায় দুই মাস পূর্বে শতাধিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যের নিকট থেকে সাত’শ টাকা থেকে এক হাজার দুইশ টাকা পর্যন্ত আদায় করেন। অভিযোগ কারীরা প্রশিক্ষণেও অংশ গ্রহন করেন। ভোটের দায়িত্ব পালনের জন্য তাদের ২৯ ডিসেম্বর উপজেলা পরিষদে আসতে বলা হয়। উপজেলা পরিষদে এসে তারা জানতে পারেন তাদের ডিউটি না দিয়ে গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রশিক্ষণ ও সনদ না থাকলেও অন্যদের নিকট থেকে অতিরিক্ত উৎকোচ গ্রহন করে তাদের ডিউটি প্রদান করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে মুঠো ফোনে হরিপুর ইউনিয়ন কমান্ডার মোজাফফর অনিয়মের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, কারা কি জন্য এই অভিযোগ দিয়েছে সেটা আমার জানা নেই। আমি এমন কোন অনৈতিক কাজ করিনি। যারা এই অভিযোগ দিয়েছে তাদের আমি চিনতেই পারছি না। তবে বিষয়টি নিয়ে আপনার (সাংবাদিক) সাথে সাক্ষাতে কথা বলতে পারলে বিস্তারিত আলোচনা করে বললে ভাল হবে।

উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা আব্দুর রহমান রানা জানান, নির্বাচনে আনসার নিয়োগ দিয়ে কেউ টাকা পয়সা নিয়েছে কিনা আমার জানা নাই। তবে যারা টাকা পয়সা দিয়েও বঞ্চিত হয়েছেন তারা লিখিত অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমার জানান, এ ব্যাপারে আমাকে মৌখিক ভাবে জানানোর পর বঞ্চিতরা লিখিত অভিযোগ করেছে। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।